রাজ্যে কারা কারা পাবেন সরকারি বাড়ি? ‘বাংলার বাড়ি’ প্রকল্প নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-প্রতিনিয়ত একাধিক প্রকল্পের সূচনা করেছে রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকার এবং এই সমস্ত প্রকল্পের আওতায় এসে উপকৃত হচ্ছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ ।তবে এবারে বিধানসভা ভোটে জয়লাভ করার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের মানুষদের জন্য একাধিক প্রকল্পের সূচনা করেছেন।

সম্প্রতি বাংলার আবাস যোজনা নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি এবং ঐদিন প্রশাসনিক বৈঠকের তা সবার সামনে তুলে ধরলেন।মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন ১০ ই ডিসেম্বর রাজ্যে শিক্ষা মেলা আয়োজিত হতে চলেছে। ওইদিন ১০ হাজার পড়ুয়াকে স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড তুলে দেওয়া হবে। এছাড়াও পড়ুয়াদের ১২ ই জানুয়ারি বিবেকানন্দ স্কলারশিপ দেওয়া হবে।

ফেব্রুয়ারি মাসেই রাজ্যের সমস্ত পুর ভোট সম্পন্ন করতে চাইছে তৃণমূল সরকার।জল নিকাশি ব্যবস্থা, সড়ক, পানীয় জলের সমস্যা দ্রুত দূর করতে হবে। সকলকে সবসময় ফোন খোলা রেখে দিতে হবে। এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন আগামী 2024 সালের মধ্যে যেন প্রত্যেকের বাড়ি বাড়ি পানীয়জল পৌঁছে যায়, সেদিকে অবশ্যই নজর রাখতে হবে।

এবার হাওড়ার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে বাংলার বাড়ি আবাস যোজনার পরিপ্রেক্ষিতে বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঐদিনের প্রশাসনিক বৈঠকের কড়া ভাষাতে সকলকে নির্দেশ দিয়েছেন এবং বলেছেন”বাংলার বাড়ি আবাস যোজনায় কোনরকম দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না। সরাসরি বাড়ি দিতে হবে। ওয়েটিং লিস্টে যাদের নাম আছে তাদের আগে বাড়ি দিতে হবে, তারপর নতুন করে আবার কাজ শুরু করতে হবে।

প্রথম পর্যায়ে যারা এখনো বাড়ি পায়নি তাদের ‘এ’ গ্রুপে চিহ্নিত করতে হবে, এবং দ্বিতীয় পর্যায়কে ‘বি’ গ্রুপে চিহ্নিত করতে হবে। যার প্রয়োজন তাকেই বাড়ি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হলো।যার চারতলা বাড়ি আছে, অথচ বাংলার বাড়ি আবাস যোজনায় তাকে বাড়ির টাকা দেওয়া হচ্ছে সেই দুর্নীতি কোনভাবেই বরদাস্ত করা হবে না।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button