“টিকটকাররা প্রয়োজনে দেহও দিতে রাজি ভুবনদা কে!” – রকস্টার সেজে গান করে তুমুল ভাইরাল হলেন ভুবন বাদ্যকর!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-চারিদিকে এখন একটি নাম ভুবন বাধ্যকর বা বাদাম কাকু ।পেটে বুদ্ধি না থাকলেও কন্ঠে ভর্তি গান রয়েছে এবং তারই জেরে তিনি সকলের মন জয় করেছেন ।পুরো ভোটের প্রচারে বিশেষভাবে দেখা গিয়েছিল এই বাদাম কাকু কে । তবে তিনি কোন দলের নাম লেখান নি বরং রাজনৈতিক নেতারা তার কাছে এসেছিল সাহায্যের জন্য । তবে তার একটি আক্ষেপ ছিল যে তার গান ব্যবহার করা হচ্ছে কিন্তু তাকে কানাকড়িও দাওয়া হচ্ছে না ।

দিন কয়েক আগে দুবরাজপুরের বাসিন্দা ভুবন বাধ্যকর বাদাম বিক্রি করতে গিয়ে কাচা বাদাম নামক গানটি গেয়ে ফেলেন এবং সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রকাশ হওয়া মাত্রই ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়েছে সেই গানটি ।বহু তারকা এবং সাধারণ মানুষ সেই গানের সাথে ইতিমধ্যে ইনস্টাগ্রামে ভিডিও করেছেন বা ইউটিউবে নতুন অঙ্গীকারে সমস্ত গানগুলো কে প্রকাশ করেছেন । যার ফলে একেবারে খবরের শিরোনামে চলে এসেছে এই ভুবন বাদ্যকর ।

সম্প্রতি কাচা বাদাম এর রিমিক্স ভার্শন প্রকাশ করা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে । এবং এই ধারণাটি প্রকাশ করা মাত্রই যেমন প্রশংসা পাওয়া গেছে তেমনি পাওয়া গেছে সমালোচনা ।প্রসঙ্গত এদিন ‘গোধুলি বেলা মিউজিক’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে শেয়ার করা হয় কাঁচা বাদামের একটি রিমিক্স ভার্সন।

যেখানে গানটির মূল রচয়িতা ভুবন বাদ্যকরের সঙ্গে গলা মেলাতে দেখা গিয়েছে রনি এবং প্রজ্ঞা নামের দুই গায়ক গায়িকাকে।মূল গানটির সঙ্গে তারা নিজেদের মতন করে নতুন লিরিক্স বসিয়ে পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।সেখানেই তার সঙ্গে গানের তালে উদ্দাম নাচতে দেখা গিয়েছে ভুবন বাদ্যকরকে।অর্থাৎ আপনার এককথায় বলতে পারেন যে রকস্টার মেজাজে এবার আত্মপ্রকাশ ঘটেছে ভুবন বাধ্যকর এর ।

রকস্টার এই বাদাম কাকুকে দেখে রীতিমতো সামাজিক মাধ্যমের ট্রোলের বন্যা বয়ে যায়। দেখা যায় একাধিক মিমও। এই ভিডিওর নিচে অনেকে কমেন্ট করে বসেন, ‘বাদাম কাকু এসব কি!’ আবার কেউ কেউ লিখেন, ‘কাকুর মুখে একেবারে মায়াবী হাসি!’ এখানেই শেষ নয় অপর এক নেটিজেনের মন্তব্য, ‘টিকটকার প্রয়োজনে দেহ দিতে রাজি ভুবন বাদ্যকারকে।ইতিমধ্যে ভিডিওটি মারাত্মক পরিমাণের ভাইরাল হয়েছে নেট মাধ্যমে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button