কোথায় গেল প্রয়াত বাপ্পি লাহিড়ীর এত সোনা? রইল ভিডিও সহ বিস্তারিত!

নিজস্ব প্রতিবেদন:গত 15 ই ফেব্রুয়ারি সকলকে কাঁদিয়ে ইহজগত ছেড়ে চলে গিয়েছেন জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক তথা গায়ক বাপ্পি লাহিড়ী। তার মৃত্যুতে সঙ্গীত জগতের যে অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে তা কখনোই পূরণ হবে না। প্রসঙ্গত 70 থেকে আশির দশকে বলিউডের জনপ্রিয় সঙ্গীত পরিচালকদের মধ্যে ছিলেন তিনি।

বলা হয় তিনি যে গানেই সুর দিতেন সেই গানই হিট হতে বাধ্য। তার একাধিক আইকনিক সং গুলির মধ্যে রয়েছেন জিমি জিমি আজা আজা, চলতে চলতে, শরাবি, ডিসকো ডানসার প্রভৃতি। বলিউডে তাকে শেষবার কাজ করতে দেখা গিয়েছিল 2020 সালে বাঘি 3 চলচ্চিত্রে।

এরপর গত বছরের শেষ দিক থেকেই তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে। মৃত্যুর কয়েক দিন আগে পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। এরপর তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়ার পর তার শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি হয়।

শেষমেষ চিকিৎসকদের পরামর্শে আবারো তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে বাধ্য হয় তার পরিবার। জানা যায় অবস্ট্রাক্টিভ স্লিপ অ্যপনিয়ার কারণেই মৃত্যু হয়েছে এই জনপ্রিয় সঙ্গীত পরিচালকের।

প্রসঙ্গত সোনা পড়তে ভীষন ভালোবাসতেন বাপ্পি লাহিড়ী। তার সংগ্রহে সোনার গয়না থেকে শুরু করে আংটি, বালা এমনকি সোনার কাপ প্লেট, জুতো এবং রোদচশমা ও ছিল। সোনাকে সৌভাগ্যের প্রতীক হিসেবে মনে করতেন বাপ্পি লাহিড়ী। আমেরিকান রকস্টার এলভিস ব্রেসলির কাছ থেকেই এই সোনার গয়না পরিধান করার ব্যাপারটি মাথায় এসেছিল তার।

অনেকের মনেই প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে গায়ক এর মৃত্যুর পর তাঁর এই সোনার গয়না গুলির কী হবে তা নিয়ে! এ প্রসঙ্গে বাপ্পি লাহিড়ীর পুত্র বাপ্পা লাহিড়ী এবং কন্যা রিমা লাহিড়ী জানিয়েছেন গায়কের সমস্ত গয়না একটি সংগ্রহশালাতে রাখা হবে।

যাতে ভবিষ্যতেও ভক্তরা এই গয়নাগুলো কে দেখতে পারেন। ইতিমধ্যেই তার সমস্ত রকম ব্যবস্থা করে ফেলেছেন তারা। স্বাভাবিকভাবেই বাপ্পি লাহিড়ীর ছেলের এই সিদ্ধান্তে যারপরনাই খুশি হয়েছেন তাঁর ভক্তরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button