৭ দিন ধরে বন্ধ থাকবে ট্রেনের টিকিট কাটা! হটাৎ কেন এই সিদ্ধান্ত নিলো রেল? জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :- পরপর সাতদিন কাটা যাবে না ট্রেনের টিকিট ।কিন্তু কেন এই সিদ্ধান্ত নিতে হলো সে ব্যাপারে কি কোন তথ্য আপনার জানা আছে? যদি জানা না থাকে তাহলে জেনে নিন আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে । প্রায় দীর্ঘ ছয় মাস পরে 31 অক্টোবর রাজ্য সরকার রাজ্যের বুকে লোকাল ট্রেন চালানো সম্পর্কে সবুজ সঙ্কেত দেয় কিন্তু শর্ত হিসেবে তারা বলেন যে অন্তত 50 শতাংশ যাত্রী নিয়ে এই লোকাল ট্রেন গুলি চলাচল করতে পারবে।

অপরদিকে লোকাল ট্রেন চালু হওয়ার পর সেই ট্রেনে উপচেপড়া ভিড় ক্রমশ চিন্তা বারাচ্ছিল চিকিৎসকদের। এমনকি রেল কর্মকর্তাদের ।তাই চাহিদামত ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানোর কথা ঘোষণা করেছিল ভারতীয় রেল। এবার সেই পথে হাঁটল তারা। দক্ষিণ-পূর্ব রেলের তরফ থেকে বৃহস্পতিবার একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়েছে, করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ধাপে ধাপে ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে।

৩১ অক্টোবর ৪৮টি লোকাল ট্রেন নিয়ে পুনরায় পথ চলা শুরু হয়। পরে ৮ নভেম্বর এই ট্রেনের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ১০৪। আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে এই সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়াচ্ছে ১৪৬, ১৫ নভেম্বর থেকে আপ ও ডাউন লাইনে যথাক্রমে ৭২ ও ৭৪টি লোকাল ট্রেন চলবে। তার পাশাপাশি রেল জানিয়েছেন যে এই সাতদিন যাত্রীরা কোনরকম টিকিট কাটতে পারবে না।ভারতীয় রেল প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেম বন্ধ রাখতে চলেছে।

গতকাল 14 ই নভেম্বর রাত থেকে আগামী ২০ নভেম্বর রাত পর্যন্ত প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেম বন্ধ রাখা হবে বলে জানিয়েছে ভারতীয় রেল।এই সাত দিন রাত ১১:৩০ মিনিট থেকে ভোর ৫:৩০ মিনিট পর্যন্ত এই ছয় ঘন্টা কোন যাত্রী রেলের টিকিট কাটতে পারবেন না অথবা বাতিল করতে পারবেন না।। মূলত সিস্টেমকে আবার পুনরায় স্বাভাবিক করতে এই ধরনের বিরতি নিয়েছে ভারতীয় রেল।এবং এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার ফলে আগামী সাতদিন হয়তো ভোগান্তির শিকার হতে পারে সাধারণ নিত্যযাত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button