ভ্যাকসিন ও লক্ষীর ভান্ডারের নাম করে ব্যাংক একাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হচ্ছে হাজার হাজার টাকা! এই বিষয়ে কড়া সতর্কবার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গের অতিমারির বাড় বাড়ন্ত সম্পর্কে নতুন করে আর বলার কোন অপেক্ষা রাখে না । তার পাশাপাশি লকডাউন এর মাত্রা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে ।যার ফলে চরম কঠিন অবস্থা দাঁড়িয়েছে সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষের জন্য কিন্তু এই সুযোগকে কাজে লাগাচ্ছে বিভিন্ন প্রতারকেরা ।

লক্ষী ভান্ডার প্রকল্পের টাকা দেওয়ার নাম করে এবং বুস্টার ডোজ দেওয়ার নাম করে ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা গায়েব করে দিচ্ছে প্রতারকরা ।কিভাবে বুঝবেন যে আপনার ব্যাংকের একাউন্টে টাকা প্রতারকদের রয়েছে কিনা জেনে নিন এক নজরে।

সম্প্রতি রাজ্য সরকারের তরফ থেকে এই বিষয়টি টুইট করে জানানো হয়েছে এবং আমরা প্রত্যেকে জানি যে করোনা ভ্যাকসিন এর দুইটি ডোজ নেওয়ার পর কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে তৃতীয় নম্বর দজ অর্থাৎ বুস্টার ডোজ নেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। প্রথমদিকে যে সমস্ত ব্যক্তির বয়স 60 বছরের উর্ধ্বে বা যারা প্রথম সারির যোদ্ধাদেরকে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

কিন্তু এই বুস্টার ডোজ কে কেন্দ্র করে প্রতারকরা পাচ্ছে এবং গায়ক লক্ষ লক্ষ টাকা ।প্রাথমিকভাবে আপনার কাছে একটি অচেনা নাম্বার থেকে ফোন আসবে । তারপর আপনাকে জিজ্ঞাসা করা হবে যে আপনি দ্বিতীয় ভ্যাকসিন নিয়েছেন কিনা আপনার উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে তার পরিবর্তে আপনাকে প্রশ্ন করা হবে যে আপনি বুস্টার ডোজ ফ্রিতে নিতে চান কিনা ।

অতি অবশ্যই আপনার উত্তর হ্যাঁ হবে । তখন তারা আপনার মোবাইলে একটি লিংক প্রেরণ করবে এবং বলবে যে ওটিপি গিয়েছে সেইটি প্রদান করার জন্য ।

যখনই আপনি তাদেরকে আপনার মোবাইলে আসা অটিপি প্রদান করবেন তখনই সেই নাম্বার সাথে যুক্ত থাকা ব্যাংকের একাউন্টে যতগুলি টাকা আছে নিমিষের মধ্যে গায়েব হয়ে যাবে অতি অবশ্যই এই বিষয়টি ভেবে চিন্তে কাজ করবেন যদি কোন অচেনা দেখতে আপনার কাছে কোন রকম কোন ওটিপি চাই কাউকে দেবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button