বাড়ি থেকে বিশাল মোটা অজগরের মতো আকারের চন্দ্রবোড়া সাপ উদ্ধার করলেন যুবক! ঝড়ের বেগে ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত এমন অনেক জিনিস ভাইরাল হয়ে থাকে যা আমাদেরকে অবাক করে রাখতে বাধ্য করে। এগুলি খুব সহজেই আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রভাব ফেলে। মানুষ থেকে শুরু করে জীবজন্তু সকলের ভিডিওই এই সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা দেখতে পাই।

এর মধ্যে এমন অনেক ভিডিও রয়েছে যা আমাদেরকে অত্যন্ত আনন্দ দেয়, আবার কিছু ভিডিও এমন রয়েছে যা আমাদের মনকে ভারাক্রান্ত করে তোলে।আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা সাপ সংক্রান্ত একটি ভিডিও নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি যা দেখলে রীতিমত ভয় পেতে বাধ্য হবেন আপনি।

ভাইরাল এই ভিডিওতে আমরা দেখতে পাচ্ছি একটি একটি বাড়ির পাশে থাকা পাঁচিলের কোনায় টালির পেছন থেকে একটি বিষধর সাপ উদ্ধার করা হয়েছে। সাপটি দীর্ঘ সময় ধরে সেখানে বাসা বেঁধেছিল। এবারে বাড়ির বাসিন্দারা সেটি দেখতে পেয়ে সর্পরক্ষক যুবককে খবর দেন।

ওই যুবকের নাম সমিরন বারিক।তিনি এসে মাত্র একটি চেষ্টাতেই সাপ ধরার যন্ত্র দিয়ে ওই বিষধরটিকে সেখান থেকে বের করে নিয়ে আসেন। প্রথমে সাপটি চন্দ্রবোড়া না অজগর তা নিয়ে সন্দেহ থাকলেও জানা যায় এটি চন্দ্রবোড়া। অত্যন্ত বিষধর সাপ এটি।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য চন্দ্রবোড়ার দেহ মোটাসোটা, লেজ ছোট ও সরু। প্রাপ্তবয়স্ক সাপের দেহের দৈর্ঘ্য সাধারণত এক মিটার; দেহের সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য ১.৮ মিটার পর্যন্ত।চন্দ্রবোড়া নিচু জমির ঘাসযুক্ত উন্মুক্ত পরিবেশে এবং কিছুটা শুষ্ক পরিবেশে বাস করে। এরা নিশাচর, এরা খাদ্য হিসেবে ইঁদুর, ছোট পাখি, টিকটিকি ও ব্যাঙ খেয়ে থাকে।

পৃথিবীতে প্রতিবছর যত মানুষ সাপের কামড়ে মারা যায়, তার উল্লেখযোগ্য একটি অংশ এই চন্দ্রবোড়ার কামড়ে মারা যায়। এদের বিষদাঁত বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বৃহৎ।চন্দ্রাবোড়ার বিষ হোমটক্সিন, যার কারণে কামড় দিলে মানুষের মাংস পচে যায়। তাই অবশ্যই এই ধরনের সাপ উদ্ধার করার সময় বা দেখতে পেলে সতর্ক থাকা উচিত।

চাইলে আপনারাও সমিরন বারিকের ইউটিউব চ্যানেলে গিয়ে এই উদ্ধারকার্যের ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন। ইতিমধ্যেই প্রায় 64 হাজার দর্শক এই ভিডিওটি দেখে নিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button