শীল-নোড়ায় বাটনা বাটছিলো বালিকা। হঠাৎ মাটির নিচ থেকে বেরিয়ে আক্রমন করলো বিশালাকার কোবরা সাপ! তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:-সাপের নাম শুনলে কার না ভয় লাগে। গা ছমছম তো করবেই ।তারপর যদি সেটি হয়ে যায় বিষাক্ত সাপ তাহলে তো আর কোন কথাই নেই। রাস্তাঘাটে ,জঙ্গলে ,পারাপারের সময় আমরা সব সময় মাথায় সাপের কথায় প্রথমে রেখে থাকি । আবার অনেক সময় ব্যাঙ্গের ছলে আমরা বলে থাকি “সাপের পাঁচ পা দেখেছিস?”।

যেহেতু সাপের কোন পা নেই তাই বিদ্রুপ করে এটি বলা হয়ে থাকে । সরীসৃপ এই প্রাণীটিকে ঘিরে কৌতুহলের অবকাশের অন্তিম নেই ।সোশ্যাল মিডিয়ার দরুন আমরা বর্তমান যুগে এমন বেশকিছু ধরনের ঘটনা দেখে থাকি যা হয়তো এর আগে আমরা কোনোদিন দেখিনি । সেই সমস্ত ঘটনাবলি আমাদেরকে অবাক করে তোলার পাশাপাশি করে তোলে হতভম্ভো এবং কৌতুহলী ।

যেহেতু সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরে মুহুর্তের মধ্যে উঠে আসা যায় সবার নজরে । তাই সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে জনপ্রিয় হতে চাই এই প্রজন্মের প্রতি ছেলে এবং মেয়ে । সেই তালিকা থেকে বাদ যায়নি অভিনেতা এবং অভিনেত্রী । নিজেদের জনপ্রিয়তা বাড়িয়ে তুলতে জীবনের ছোটখাট মুহূর্ত তুলে ধরে অনুগামীদের সাথে।

সম্প্রতি যে ভিডিওটি দেখা গেছে সেটি খুব সম্ভবত উড়িষ্যার কোন একটি গ্রামে ।সেখানকার একটি গ্রামের বাড়ির মধ্যে সাপের উপদ্রব বেড়ে যাওয়ার কারণে সেখানকার স্থানীয় মানুষেরা খবর দেয় স্থানীয় এক সাপুড়ে কে । সেখানকার বিখ্যাত জনপ্রিয় সপুড়ে হলো মির্জা মোঃ আরিফ ।

কিছুক্ষণের মধ্যেই সেখানে এসে উপস্থিত হন তিনি । এবং তিনি অনুমান করে বুঝতে পারেন যে মেঝের নিচে গর্ত করে লুকিয়ে রয়েছে কোবরা সাপ । স্বাভাবিকভাবেই মেঝে কে ভাঙতে হবে । তাই বড় একটি শাবল নিয়ে সে নিজেকে ভাঙ্গার কাজ শুরু করে তিনি নিজেই তারপর তার অনুমান সত্যি হয় ।

সত্যি সেখানে লুকিয়েছিল বিষাক্ত একটি কোবরা সাপ ।অত্যন্ত যত্নসহকারে কোনো রকম কোনো আঘাত ছাড়া এসে সাপটিকে সেখান থেকে তিনি উদ্ধার করেন এবং নিরাপদ জায়গায় পরবর্তীকালে ছেড়ে দেন ইতিমধ্যে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button