শুরু হয়েছে কেন্দ্র সরকারের ই-শ্রম কার্ডে টাকা পাঠানো! কবে থেকে 1000 টাকা করে ঢুকবে আপনার একাউন্টে? জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-ইতিমধ্যে গোটা দেশজুড়ে ই শ্রম কার্ড তৈরি করার জন্য তাড়াহুড়ো লেগে গেছে। দেশের প্রায় প্রতিটি মানুষ এই সমস্ত সুযোগ সুবিধাগু-লি পাবার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। এই কার্ডের মাধ্যমে একাধিক প্রকল্প সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে অসংগঠিত শ্রমিকদের কে ।এবং তাদেরকে সরকারি ছত্রছায়ায় এনে সাহায্য করাই হচ্ছে এই কার্ডের মুল উদ্দেশ্য।এই কার্ড তৈরি করতে গেলে সর্বপ্রথম প্রয়োজন হবে শ্রমিকের আধার কার্ড।

এছাড়াও ব্যাংকের পাসবুক এবং ফোন নম্বর এর প্রয়োজন হবে। ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকেরাও এই কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এছাড়াও কৃষি শ্রমিক, শাকসবজি ও ফল বিক্রেতা, পরিযায়ী শ্রমিক, অটো বা রিক্সা চালক, খবরের কাগজ বিক্রেতা, আশা কর্মী বা নাপিত, গৃহকর্মী ,ধাত্রী বা দাই, ইটভাটার শ্রমিক, ছুতোর মিস্ত্রি, জেলে প্রভৃতি মানুষেরাও এই কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

ই-কার্ডের বিশেষ কিছু সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। যদি কার্ডের সঙ্গে যুক্ত শ্রমিক কখনো দুর্ঘটনার কবলে পড়েন তাহলে বীমা সুবিধা পাবেন এই কার্ড এর জন্য। এছাড়াও শ্রমিকের মৃত্যু হলে বা পুরোপুরি অক্ষম হলে ক্ষতিপূরণ হিসেবে দুই লক্ষ টাকা দেওয়া হবে। আংশিক ভাবে অক্ষম হলে এই টাকার অঙ্ক হবে এক লক্ষ।এছাড়াও এই কার্ড তৈরি করা থাকলে কেন্দ্র সরকারের সমস্ত রকম সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবেন অসংগঠিত ক্ষেত্রের সঙ্গে যুক্ত শ্রমিকেরা।

তবে এবার কেন্দ্রীয় সরকার তরফ থেকে জানানো হচ্ছে প্রায় অর্ধেকের বেশি লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার । এখনও পর্যন্ত মোট 18. 55 কোটি অসংগঠিত শ্রমিকদের জন্য নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছেন । অপরদিকে সবথেকে বেশি সংখ্যক রয়েছে উত্তরবঙ্গের দিকে ।

সেখানে অসংগঠিত শ্রমিকের সংখ্যা প্রায় 6.5 কোটি । সরকারের তরফ থেকে জানানো হচ্ছে যে ইতিমধ্যে দুই মাসের কিস্তি অর্থাৎ হাজার টাকা একাউন্টে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে ।এর জন্য সরকারের তরফ থেকে দেড় হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button