‘সকাল বেলা উঠেই পান্তা ভাত খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে, আপনারাই বলুন আমি পান্তাভাত খাওয়ার যোগ্য?’- ভাইরাল রানু মন্ডলের নতুন ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে উঠে আসা স্টেশন চত্বর থেকে রানাঘাটের রানু মন্ডল এর বর্তমান অবস্থা কেমন কিভাবে কা-টছে তার দিন সে কথা কি কেউ একবারও খোঁজ নিয়েছেন ? নেননি । জানতে চাইনি যে সে ভালো আছেন কিনা । কিন্তু সত্যিই তো প্রশ্ন আছে যে এখন এই কঠিন পরিস্থিতিতে রানু মন্ডল উপার্জন করছে কিভাবে ? কিভাবে কা-টছে তার দিন আর সেই সমস্ত ঘটনা নিয়ে আজকের এই প্রতিবেদন।

অতীন্দ্র চক্রবর্তী নামক এক ২৪ বছর বয়সী ইঞ্জিনিয়ার রানুর গানকে রেকর্ড করে সোশ্যাল মিডিয়ায় মানুষের সামনে উন্মুক্ত করে দেন। তার গানের গলা মুগ্ধতা লাভ করতে করতে বলিউড অব্দি পৌঁছে যায়।তারপর হিমেশের পরিচালনায় রানুর গলায় রেকর্ড করা নতুন গান সবার কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।গানটি প্রকাশ্যে আসার পর অনেক অনুষ্ঠানেই শুনতে পাওয়া যায় প্রতিনিয়ত।

নিজের অস্বাভাবিক মন্তব্যের জন্য এরপর রানু মন্ডল বি-তর্কেও জড়ান।ঠিক যতটা সাহায্য তাকে করেছিলেন অতীন্দ্র চক্রবর্তী ঠিক ততটাই সাহায্যের হাত তিনি পেয়েছেন হিমেশ রেশমিয়ার কাছ থেকে।তেরি মেরি পর হিমেশের সাথে আরো একটি গান রেকর্ড করছেন তিনি। তবে লকডাউন এর সময় তার অবস্থা রীতিমতো নাজেহাল। যে রানু মন্ডল একসময় মুম্বাইয়ের স্টুডিওতে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন সে রানু মন্ডল আবার ফিরে এসেছেন রানাঘাটের নিজস্ব বাড়িতে ।

প্রতিদিনই তাকে ভাবতে হচ্ছে যে পরদিন কিভাবে তার সংসার চলবে । এতটাই করুন অবস্থা । কিন্তু আমরা দেখেছিলাম এই অবস্থার মাঝেও তিনি গরীব দুঃস্থ মানুষদের কে ত্রাণ বিলি করছেন । যা তার উদার মানসিকতার পরিচয় । সম্প্রতি সাক্ষাৎকারের একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে যদিও ভিডিওটি আগের বছর ল-কডা-উন এর সময় । কিন্তু সেই ভিডিওটি পুনরায় মাথাচা-ড়া দিয়ে উঠেছে । এবং মানুষ আবার জানতে চেয়েছি যে এই বারে রানু মন্ডল এ অবস্থা কেমন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button