যেভাবে বাড়িতেই ছোট্ট স্টিলের পাত্র বা মাটির পাত্রে মাত্র 15 মিনিটে নবদ্বীপের জনপ্রিয় লাল মিষ্টি দই বানিয়ে ফেলবেন খুব সহজে, রইল পদ্ধতি!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-আমাদের খাদ্য তালিকায় এমন অনেক কিছু থেকে দেখেন যেগুলোকে আমরা ব্যবহার করতে ভুলি না কখনো ঠিক যেমন ধরুন মিষ্টি দই মিষ্টি দিয়ে কথা বললেই প্রথমে মনে পড়ে নবদ্বীপের কথা কারণ নবদ্বীপের বিশ্ব বিখ্যাত । কোন ছোট অনুষ্ঠান বাড়ি হোক বা পূজা-পার্বণ বা যে কোনো ধরনের অনুষ্ঠান হোক মিষ্টি দই থাকাটা বাঞ্ছনীয় এবং কোথাও যেন আমরা বাঙালিরা মিষ্টি দই কে শুভ কাজে বেশি ব্যবহার করে থাকি।

আপনারা হয়তো অনেকেই বাড়িতে লাল দই তৈরি করার চেষ্টা করছেন । কিন্তু শেষ মুহূর্তে হয়েছেন বিফল । কারণ শেষ মুহূর্তে এমন একটি পদ্ধতি অবলম্বন করতে হয় যা অনেকেরই হয়তো অজানা । আজকের এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে সেই অজানা তথ্য তুলে ধরার চেষ্টা করব এবং তৈরি করে ফেলব বাড়িতেই সুস্বাদু লাল দই । প্রথমে বাজার থেকে ব্র্যান্ডেড কোন কোম্পানির টক দই নিয়ে নেবো হাফ চামচ এবং সেটিকে একটি ছাঁকনির সাহায্যে ঝু-লিয়ে রাখবো যাতে টকদই থেকে অতিরিক্ত জল বেরিয়ে যায় ।

এরপর একটি পাত্রে ২ থেকে ৩ কাপ জল গরম করতে দেব এবং তার মধ্যে যোগ করে দেবো একটি বড় মাপের চামচের এক চামচ গুঁড়ো দুধ । এমতাবস্থায় মিশ্রনটিকে ভালো মতন নাড়তে থাকবে এবং জাল দিতে থাকব। অপরদিকে আমরা তৈরী করব ততক্ষণে ক্যারামেল । এটি তৈরি করার জন্য একটি পাত্রে আপনাকে হাফ চামচ চিনি দিতে হবে এবং তার মধ্যে দিতে হবে সামান্য পরিমাণে জল । এমতাবস্থায় মিশ্রনটিকে ভালো মতন জ্বাল দিলে কিছুক্ষণ পর দেখা যাবে সেটি বাদামি রঙের হয়ে গেছে । এইবার সেই ক্যারামেল এর উপর যোগ করব অর্ধেক গুঁড়ো দুধের মিশ্রন ।

এমতাবস্থায় সেটি ভালো মতো মিশিয়ে সেটিকে বাকি যে দুধ রয়েছে তার মধ্যে দিয়ে দেবো ক্যারামেল মিশ্রণটি। এরপর তার মধ্যে যোগ করে দেবো আগে থেকে ঝুলিয়ে রাখা হাফ চামচ টক দই । এমতাবস্তায় আপনি দেখবেন যেন দুধের তাপমাত্রা মাঝারি থাকে । অর্থাৎ খুব বেশি গরম বা খুব বেশি ঠান্ডা যেন না থাকে । তার মধ্যে যোগ করে দেবো টক দই । ভালো রকম ভাবে মিশিয়ে নেব । তারপরও একটি পাত্রে বা আপনি যেখানে রাখতে চান সেই পাত্রেই মিশ্রণটি ঢেলে রাখবো এবং ঠান্ডা করতে দেবো ফ্রিজে । তাহলে তৈরি হয়ে যাবে লাল দই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button