সহ অভিনেতা অভিষেকের অকাল মৃত্যুতে কান্নায় ভেঙ্গে পড়লেন প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী! ব্যাপক ভাইরাল হলো ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:মাত্র 57 বছর বয়সেই অকালপ্রয়াণ হলো অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের। প্রায় কয়েক দশক ধরে অভিনয়ের সঙ্গে জড়িয়ে ছিলেন। অভিনয় ছিল তার প্রাণ। প্রসঙ্গত মঙ্গলবার থেকেই পেটের সমস্যায় ভুগছিলেন এই কিংবদন্তি অভিনেতা। কিন্তু তা সত্বেও বুধবার একটি রিয়েলিটি শোতে শুটিংয়ের জন্য উপস্থিত হন তিনি।

যদিও সেখানে শুটিং শেষ করতে পারেননি অভিষেক। কারণ শ্যুটিং চলাকালীন তিনি আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার প্রেসার কমে যাওয়ার কারণে দীর্ঘ সময় শুটিং ফ্লোরের একটি সোফাতেই শুয়ে ছিলেন তিনি। হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেওয়া হলেও ভর্তি হতে চাননি অভিনেতা। বাড়িতেই স্যালাইন চলছিল তার।

অভিনেতার মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ হয়ে পড়েছে টলিউড জগত। এদিন তাকে শেষ দেখা দেখতে বাড়িতে উপস্থিত হয়েছিলেন ইন্দ্রানী হালদার, রচনা ব্যানার্জী, লাবনী সরকার, ইন্দ্রানী দত্ত, তৃণা সাহা প্রমুখ। অভিষেকের মৃত্যুতে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে তার সহকর্মী তথা টলিউড বন্ধু প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় বলেন,”একের পর এক আমায় মৃত্যু দেখে যেতে হয়।

আর প্রতিক্রিয়া দিয়ে যেতে হয়। কিন্তু অভিষেকের খবরটা সকালে শোনার পর এই প্রথম সংবাদমাধ্যমকে জানাচ্ছি, এর প্রতিক্রিয়া আমি দিতে পারব না। ওর বিয়েতে বরকর্তা হয়ে গিয়েছিলাম আমি। সেই দিনটার কথা আজ মনে পড়ছে। ওর সঙ্গে যা কিছু ভাল স্মৃতি সেটাই রেখে দিতে চাই। এর বেশি সত্যি ওর জন্য আমি আর কোনও শব্দ ব্যবহার করতে পারছি না”।

দীর্ঘ সময় ধরে বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে অভিনয় করে গিয়েছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়, অভিষেক চট্টোপাধ্যায়, তাপস পাল, চিরঞ্জিৎ চক্রবর্তীর মতো অভিনেতারা। অত্যন্ত বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল তাদের।

এদিন সমস্ত পুরনো দিনের স্মৃতিচারণ করতে দেখা যায় প্রসেনজিত কে। অন্যদিকে অভিষেক চট্টোপাধ্যায় এর মৃত্যুতে হাউমাউ করে কান্নায় ভেঙে পড়েন তৃণা সাহা। খরকুটো ধারাবাহিকে তৃণার বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন অভিষেক। পর্দার বাইরেও তাদের এই রসায়নের খুব একটা পার্থক্য ছিল না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button