ইলেকট্রিক বিল নিয়ে আসতে চলেছে নতুন বিরাট নিয়ম! আর করা যাবেনা ইচ্ছেমত বিদ্যুৎ খরচ! চরম বিভ্রান্তিতে পড়তে পারেন সাধারণ মানুষ! জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-আগামী 29 নভেম্বর থেকে সংসদের শীতকালীন অধিবেশন শুরু হতে চলেছে । এবং এই অধিবেশনে কেন্দ্রীয় সরকার কর্তৃক একটি নতুন বিল লাগুকরার কথা চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে ।এই বিলের নিয়ম অনুসারে বলা হচ্ছে যে এবারে এক ধাক্কাতে বেড়েছে অনেকটা বিদ্যুতের দাম। বিদ্যুৎ বণ্টনকারী সংস্থাগু-লি এবং বিদ্যুৎ প্রস্তুতকারী সংস্থা গুলি আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে প্রতিনিয়ত ।

তাই এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।সম্প্রতি বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানি গুলি অভিযোগ করছে যে তারা যথেষ্ট লোকসানের মুখোমুখি হয়েছে। তারা 50 হাজার কোটি টাকা লোকসানের মুখোমুখি হয়েছে বলে জানিয়েছে। এছাড়াও বিদ্যুৎ কোম্পানি গুলোর 95 হাজার কোটি টাকা পাওনা আছে বলে জানিয়েছে বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থাগু-লি।

তাই এই বিল আনার প্রস্তুতি নিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার।যদিও এই বিলের চূড়ান্ত বিরোধিতা করেছে পশ্চিমবঙ্গ মহারাষ্ট্র তামিলনাড়ুর কেরল সহ একাধিক রাজ্য।নতুন বিয়ের নিয়ম অনুসারে এমনটা জানানো হচ্ছে যে এবার থেকে সাবসিটি টাকা বিদ্যুৎ বণ্টনকারী সংস্থাগুলিকে না দিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার সরাসরি গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেবেন ।

কিন্তু এই টাকার পরিমান কত বা কারা কারা এ টাকা পাবে তা এখনো পর্যন্ত স্পষ্ট ভাবে জানা যায়নি তবে বিশেষজ্ঞদের মতামত এই নিয়ম কার্যকরী হওয়ার সাথে সাথে এক ধাক্কাতে অনেকটা বেড়ে যায় বিদ্যুতের দাম ।

যার ফলে সাধারণ মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষের ভোগান্তির শিকার হতে হবে।বিদ্যুৎ আইনের আওতায় বিদ্যুৎ সরবরাহকারী সংস্থাগু-লিকে অনুমোদন দেওয়া হবে যাতে উপভোগ তারা কেমন বিদ্যুৎ ব্যবহার করছেন তার ওপর নির্ভর করে 0.47 টাকা ইউনিট প্রতি বৃদ্ধি করার জন্য, এর ফলে গ্রাহকদের যথেষ্ট সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button