অনস্ক্রিন শ্বশুরমশাই অভিষেকের জন্য কান্নায় ভাসালেন মোহর! ঝড়ের বেগে ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:আচমকাই শুটিং ফ্লোরে অসুস্থ হয়ে ইহজগত পরিত্যাগ করলেন কিংবদন্তি অভিনেতা অভিষেক চট্টোপাধ্যায়। মৃত্যুর ঠিক আগের দিন রাতেও এই মানুষটিকে শুটিং ফ্লোরে দেখা গিয়েছিল। তখনো কেউ হয়তো ভাবতেও পারেননি যে পরেরদিন তাকে চোখের জলে বিদায় জানাতে হবে।

সুদীর্ঘ কয়েক দশকের অভিনয় ক্যারিয়ার অভিষেকের।তবে বিগত বেশ কিছু সময় ধরে বড়পর্দার সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয়ে গিয়েছিল তার। ছোটপর্দার বিভিন্ন ধারাবাহিকে অভিনয় করছিলেন তিনি। টেলিদুনিয়ার অত্যন্ত পরিচিত মুখ ছিলেন এই অভিনেতা। জানা যায় মঙ্গলবার ধারাবাহিকের সেটেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি।যা খাচ্ছিলেন তাই বমি হয়ে যাচ্ছিল।

তাকে অসুস্থ দেখে তার সহকর্মীরা হাসপাতালে ভর্তির কথা বলেন। কিন্তু সে সব কিছুর তোয়াক্কা না করেই বুধবার আবারও জিতের নতুন রিয়েলিটি-শো ইস্মার্ট জোরির শুটিংয়ে সস্ত্রীক হাজির হন অভিনেতা।

কিন্তু সেখানে আচমকা তার প্রেসার 80 তে নেমে আসে। কালো কফি দেওয়া হয় তাকে। শুটিং ফ্লোর এর একটি সোফাতেই দীর্ঘক্ষন শুয়ে ছিলেন তিনি। এরপর চিকিৎসকদের পরামর্শে ওষুধ নিয়ে বাড়ি ফিরে আসেন অভিষেক। বাড়িতেই তাঁর স্যালাইন চলছিল।

রাত 1 টা বেজে 40 মিনিট নাগাদ আচমকাই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন 57 বছর বয়সী এই জনপ্রিয় অভিনেতা। তার মৃত্যুর খবরে রীতিমতো শোকের ছায়া গোটা টলিউড জগৎজুড়ে। ইতিমধ্যেই তাকে শেষ দেখার জন্য তার বাড়িতে উপস্থিত হয়েছেন তার টলিউডের বন্ধুরা।

এর মধ্যে রয়েছেন ইন্দ্রানী হালদার, রচনা ব্যানার্জি, লাবনী সরকার, ইন্দ্রানী দত্ত থেকে শুরু করে তৃণা সাহা সকলেই। অনেককেই অভিনেতার বাড়িতে পৌঁছে রীতিমতো হাউমাউ করে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা গিয়েছে। খরকুটো ধারাবাহিকে তৃনা সাহার বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন অভিষেক চট্টোপাধ্যায়।

বাস্তব জীবনেও তাদের মধ্যে বাবা এবং মেয়ের মতোই সম্পর্ক ছিল। তৃণা জানান শরীরের যত্ন নেওয়ার জন্য বেশ কয়েকবার অভিষেক দা কে বকাবকি করেছেন তিনি। অন্যদিকে এদিন উপস্থিত ছিলেন মোহর ও। এই ধারাবাহিকেও গত কয়েক মাস আগে দেখা গিয়েছিল অভিষেককে। এদিন তার মৃত্যুর খবরে চোখের জল ধরে রাখতে পারেনি সহকর্মীদের কেউই।

ইতিমধ্যেই অভিষেকের শেষকৃত্যের বেশ কয়েকটি ভিডিও ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে উঠে এসেছে। টিউবলাইট নিউজ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে এই ভিডিওগুলি শেয়ার করা হয়েছে। চাইলে আপনারাও দেখে নিতে পারেন সেই ভিডিও।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button