গর্ভবতী অবস্থায় কিভাবে বুঝবেন আপনার ছেলে হবে না মেয়ে? জানুন এই 12 টি লক্ষণ দেখে।

নিজস্ব প্রতিবেদন :-পরিবারে যখন কোন নতুন সদস্য আগমন ঘটে তখন পরিবারের সকলের মধ্যে একটা কৌতূহলের সৃষ্টি হয় যে পুত্র সন্তান কন্যা সন্তান আগমন ঘটতে চলেছে তাদের ঘরে। কিন্তু যদিও এটা আইনত অপরাধ ।তবুও অনেকেই বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে কিন্তু আগে থেকেই জেনে নেয় যে তার গর্ভে পুত্র সন্তান নাকি কন্যা সন্তান বর্তমান রয়েছে ।

আগে দেখা যেত যদি কন্যা সন্তান থাকতো তাহলে তাকে সেই অবস্থায় মেরে ফেলা হতো ।তাই এটিকে আইনের তত্ত্বাবধানে আনা হয়েছে। এমন কাজ করলে এখন আইনী পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব ।কিন্তু তবুও এই কাজ না করেও আপনি জেনে নিতে পারবেন যে আপনার বাড়িতে পুত্র সন্তান নাকি কন্যা সন্তান আসতে চলেছে কিভাবে জানুন বিস্তারিত।

১)যদি পুত্র সন্তান জন্ম দেন তাহলে পায়ের পাতা ঠান্ডা হয়ে যায় বেশি মাত্রায় এমন ধরনের লক্ষণের বহিঃপ্রকাশ ঘটলে মনে কোনো সন্দেহ রাখবেন যে ছেলে সন্তানের জন্ম হতে চলেছে।

২)অন্তসত্তা অবস্থায় যদি পেটর ওপর দিকটা উচু মনে হয় তাহলে কন্যা সন্তান হবে। আর নীচের দিকে মনে হলে পুত্রসন্তান হবে। কিন্তু এই পদ্ধতিগুলি তে সব সময় যে ঠিক জানা যাবে তা বলাও যায় না।

৩)গর্ভস্থ থাকাকালীন যদি আপনার বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মিষ্টি খেতে ইচ্ছা করে তাহলে বুঝবেন যে আপনার পেটে ফুটফুটে একটি কন্যাসন্তান রয়েছে ।

৪)আপনি গর্ভবস্থায় যখন ঘুমান তখন যদি নিজের অজান্তেই বেশিরভাগ সময় ডান দিক ফিরে শুয়ে থাকেন তাহলে আপনার কোলে একটি কন্যা সন্তান আসতে চলেছে।

৫)গর্ভে থাকাকালীন মর্নিং সিকনেস অর্থাৎ অলসতা প্রত্যেকে মেয়েদের হয়ে থাকে । কিন্তু এই অলসতার পরিমাণের উপর নির্ভর করছে আপনার গর্ভের সন্তানের লিঙ্গ । যদি আপনি একটু বেশি অনুভব করেন তাহলে বুঝবেন যে আপনার গর্ভে থাকা সন্তানটি একটি কন্যা সন্তান । আর যদি কম অনুভব করেন তাহলে জানবি পুত্র সন্তান।

৬)গর্ভাবস্থায় যদি আপনার ত্বকের কোনো সমস্যা দেখা যায় তাহলে ধরে নিতে পারেন যে আপনার গর্ভে কন্যা সন্তান রয়েছে কারণ পুত্র সন্তান হলে ত্বকের তেমনভাবে কোন সমস্যার পরিলক্ষিত হয় না।

৭)গর্ভাবস্থায় যদি আপনার চুল খুব পাতলা ও উজ্জলতাহীন হয়ে পরে তাহলে আপনি একটা ফুটফুটে কন্যা সন্তান জন্ম দিতে চলেছেন। আর আপনার গর্ভে পুত্র সন্তান থাকলে আপনার চুল আরো সুন্দর হয়ে উঠবে।এই সমস্ত লক্ষণগুলি যদি আপনার মধ্যে রাখা যায় তাহলে নিশ্চিন্তে থাকুন কারণ আপনার ঘরের লক্ষী আসতে চলেছে ।

)সাইকোলজি অনুযায়ী আপনার গর্ভবস্থায় যদি আপনার মন খুব ভালো থাকে, আপনি খুব শৃঙ্ক্ষলা পরায়ন থাকেন তাহলে আপনি কন্যা সন্তানের মা হবেন। আর আপনি যদি ক্লামজি মুডে থাকেন তাহলে আপনি পুত্র সন্তানের মা হবেন।

৯) গর্ভবস্থা কালীন একটি গ্লাসে জল ও বেকিং সোডা নিন, তাতে আপনার একটু ইউরিন মেশান। যদি সেটা কোন বিক্রিয়া না করে তাহলে আপনার কন্যা সন্তান হবে, আর যদি সেটা বিক্রিয়া করে ফেনা ওঠে আর ফিজি শব্দ হয় তহলে পুত্র সন্তান হবে।

১০) গর্ভবস্থায় মেয়েদের ইউরিনের পরিবর্তন দেখা যায়। যদি মাঝে মধ্যে প্রস্রাবের রঙ পালটে সাদা ঘোলাটে হয়ে যায় তাহলে আপনি এক কন্যা সন্তানের জন্ম দিতে চলেছেন।

১১)গর্ভবতী থাকাকালীন যদি আপনার তলপেটে সামান্য পরিমান ভারী লাগে তাহলে এমনটা ধরে নেওয়া যেতে পারে যখন পুত্র সন্তান হতে চলেছে ।

১২) গর্ভাবস্থায় থাকাকালীন যদি আপনার বা দিকের স্তনের তুলনায় ডান দিকের স্তন অতিরিক্ত বৃদ্ধি ঘটে তাহলে এমনটা অনুমান করা যেতেই পারে আপনার গর্ভে কন্যা সন্তান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button